ভাড়া বাড়িয়ে ৩১ মে থেকে বাস ও লঞ্চ চালাবেন মালিকরা
Published : Thursday, 28 May, 2020 at 12:00 AM, Update: 28.05.2020 9:51:58 PM
দিনকাল রিপোর্ট
আগামী ৩১ মে থেকে নতুনভাবে ‘ভাড়া পুনর্বিন্যাস’ করে বাস চালাতে চাচ্ছেন মালিকরা। আর স্বাস্থ্যবিধি মেনে টার্মিনাল থেকে যাত্রী উঠানো ও কাউন্টার খোলা রাখা হবে। বৃহস্পতিবার (২৮ মে) বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও শ্যামলী পরিবহনের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাকেশ সারাবাংলাকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।
তবে ভাড়ার হার কি রকম হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে কিভাবে টার্মিনাল থেকে যাত্রী ওঠানামা করা হবে সেসব বিষয়ে আলোচনা করতেই কাল (শুক্রবার) সকাল ১১টায় বৈঠক হবে বলেও জানান রাকেশ ঘোষ।
গাবতলী থেকে দেশের উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলে গাড়ি-বাস মালিকদের সংগঠন, বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, সায়েদাবাদ, মহাখালী, ফুলবাড়িয়াাসহ কয়েকটি টার্মিনালের দূরপাল্লার রুটের বাস মালিকদের সংগঠন ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতিও একই রকম সিদ্ধান্ত নিয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত সংখ্যক যাত্রী নিয়ে চলতে গেলে নতুন করে ভাড়া ধার্য করার বিষয়েই বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন তারা।
সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ জানান, সরকারের নির্দেশনার পর এখন মালিকরা নিজেরা বৈঠক করে ঠিক করবেন এ বিষয়গুলো। এরপর ভাঢ়াসহ সার্বিক বিষয় নিয়ে কাল (শুক্রবার) বিকেল তিনটায় বনানীতে বিআরটিএ’র প্রধান কার্যালয়ে সরকারের কর্তৃপরে সঙ্গে মালিকদের বৈঠক হবে।
এদিকে, ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত গণপরিবহনগুলো কীভাবে চলবে সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগ নির্দেশনা জারি করবে বলে বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক আদেশে জানানো হয়েছে।
মহাখালী কেন্দ্রিক একজন বাস মালিক জানান, অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলতে গেলে ভাড়া অন্তত ৭০ যাত্রীর সমপরিমাণ ভাড়া তুলতে হবে। এই পরিমাণ নিয়ে সরকারের সংস্থার সঙ্গে তাদের কোনো বৈঠক এখনও হয়নি। মালিক নেতারা চাচ্ছেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনা পরিস্থিতিতে সীমিত যাত্রী তুলে অন্তত ৭০ শতাংশ যাত্রীর সমপরিমাণ ভাড়া। এটাকেই তারা ‘ভাড়ার পুনর্বিন্যাস’ বলে উল্লেখ করছেন।
বাড়কব লঞ্চ বাড়াও
সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী রবিবার  (৩১ মে) থেকে সীমিত পরিসরে চলবে লঞ্চ। তবে ভাড়া বাড়বে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতির সভাপতি মাহবুব উদ্দিন আহমেদ। শুক্রবার (২৯ মে) বিকালে লঞ্চ মালিকদের সঙ্গে বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যানের বৈঠকের পর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।
খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় নয়, সরকারের আদেশেই গণপরিবহনের অংশ হিসেবে লঞ্চ চলাচল বন্ধ ছিল। যেহেতু আজকের (২৮ মে) সরকারি আদেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শর্তসাপেে স্বল্পসংখ্যক যাত্রী নিয়ে সীমিত পরিসরে গণপরিবহন চলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে, সেহেতু আগামী ৩১ মে থেকে লঞ্চ চলবে। তবে শর্ত পরিপালনের বিষয়সহ নানাদিক দিয়ে লঞ্চ মালিকদের সঙ্গে বৈঠক করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান।’  এই সময়ে ভাড়া বাড়ানোর বিষয়টি নিয়েও ওই বৈঠকে আলোচনা হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।   
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতির সভাপতি মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমরা সরকারের কোনও আদেশ অমান্য করতে পারবো না। তাই আগামী ৩১ মে রবিবার থেকে লঞ্চ চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তবে যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি কতটা মানাতে পারবো, তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দিহান আমি নিজেই। কারণ, ফেরিতে চলাচলের েেত্র সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সাধারণ মানুষের ঘরে ফেরার দৃশ্য দেখেছি।’  




তিনি বলেন, ‘অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চ চালালে ধারণ মতার পাঁচ ভাগের একভাগ যাত্রী নিয়ে গন্তব্যে রওনা করতে হবে। সেেেত্র ভাড়া বাড়ানোর বিষয়টি তো প্রাসঙ্গিক। তাই এ বিষয়টি নিয়েও শুক্রবারের বৈঠকে আলোচনা হবে।’
মাহবুব উদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমরা যাতে লঞ্চ চালাতে পারি, সেেেত্র সরকার তথা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীরও সহযোগিতা লাগবে। কোনোভাবেই আমাদের লঞ্চের স্টাফদের জীবন ঝুঁকিতে ফেলতে পারবো না।’ তারা সুস্থ না থাকলে আমাদের আম-ছালা দুটোই যাবে বলেও মন্তব্য করেন বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতির সভাপতি।










প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকার গণপরিবহনের সিন্ডিকেটের কাছেই আত্মসমর্পণ করেছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা