করোনা পরীক্ষা বৃদ্ধি : সর্বোচ্চ শনাক্ত
Published : Saturday, 30 May, 2020 at 12:00 AM, Update: 29.05.2020 8:31:31 PM
দিনকাল রিপোর্ট
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও দুই হাজার ৫২৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এটিই এ পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট ৪২ হাজার ৮৪৪ জন করোনা শনাক্ত হলেন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২৩ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৮২ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫৯০ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৯ হাজার ১৫ জন। এর আগে বৃহস্পতিবার দেশে করোনায় ২ হাজার ২৯ জন সংক্রমিত হওয়ার কথা জানানো হয়েছিল। মারা গিয়েছিলেন ১৫ জন।
গতকাল শুক্রবার (২৯ মে) বেলা আড়াইটায় কোভিড-১৯ সম্পর্কিত সার্বিক পরিস্থিতি জানাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনের আয়োজন করা হয়। সেখানে এসব তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।
তিনি জানান, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ১৯ জন পুরুষ এবং চার জন নারী। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৯ জন, রংপুর বিভাগে দুইজন, বরিশাল বিভাগে একজন এবং সিলেট বিভাগে একজন রয়েছেন।
বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে পাঁচজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে পাঁচজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুইজন, ২১ বছর থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন এবং ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।
নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১২ হাজার ৯৮২টি, পরীক্ষা করা হয়েছে ১১ হাজার ৩০১টি। এখন পর্যন্ত দুই লাখ ৮৭ হাজার ৬৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২১ দশমিক চার শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩৬ শতাংশ।
স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৩২৮ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন পাঁচ হাজার ১৪০ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৭২ জন। এখন পর্যন্ত মোট ছাড়া পেয়েছেন দুই হাজার ৮১০ জন।
তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টাইন মিলে কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে চার হাজার ৯০০ জনকে। এখন পর্যন্ত মোট দুই লাখ ৮০ হাজার পাঁচজনকে কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে। কোয়ারেন্টাইন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড়া পেয়েছেন দুই হাজার ৯১৮ জন। এখন পর্যন্ত মোট ছাড়া পেয়েছেন দুই লাখ ১৯ হাজার ৭৭০ জন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টাইন আছেন ৬০ হাজার ২৭৫ জন। শনাক্তের হার ২২.৩৩, ৮ দিনে বেড়েছে ৪.৯১ শতাংশ দেশে মহামারি করোনা ভাইরাসে শনাক্ত রোগীর হার প্রতিদিনই বাড়ছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৪৯টি ল্যাবে ১১ হাজার ৩০১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ৫২৩ জন। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশ।
শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের  দৈনন্দিন স্বাস্থ্য বুলেটিন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
গত ২২ মে থেকে ২৯ মে পর্যন্ত প্রতিদিনের নমুনা পরীক্ষা ও শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, পরীক্ষা বিবেচনায় দেশে শনাক্তের হার বাড়ছে। গত ২২ মে শনাক্তের হার ছিল ১৭ দশমিক ৪২ শতাংশ। এরপর ২৩ মে ১৭ দশমিক ২৯ শতাংশ ও ২৪ মে ১৭ দশমিক ১৯ শতাংশ থাকলেও ২৫ মে তা বেড়ে ২০ দশমিক ৯০ শতাংশ ও ২৬ মে ২১ দশমিক ৫৬ শতাংশে দাঁড়ায়। এরপর ২৭ মে ১৯ দশমিক ২২ শতাংশ থাকলেও ২৮ মে আবারও বেড়ে ২১ দশমিক ৭৯ শতাংশ এবং সর্বশেষ  গতকাল (২৯ মে) ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশে দাঁড়ায়।




শনাক্তের হার বাড়ার কারণ জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘মানুষ সংক্রমিত হচ্ছে, তাই শনাক্তের হারও বাড়ছে।’ সামনে শনাক্তের হার আরও বাড়ার আশঙ্কাও প্রকাশ করেছেন তিনি। ‘শনাক্তের হার বাড়ছে। তবুও সরকারের পক্ষ থেকে সীমিত আকারে সব সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিসগুলো খুলে দেওয়া এবং স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে গণপরিবহন, যাত্রীবাহী নৌযান ও রেল চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে’ এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি।
বর্তমানে দেশে ৪৯টি ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। ‘ল্যাব আরও বাড়ানো হবে কি না, হলে তা কী পরিমাণে’ এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ল্যাব বাড়ানো একটি চলমান প্রক্রিয়া। আগামী ১০-১৫ দিনের মধ্যে আরও চার-পাঁচটি ল্যাব প্রস্তুত হবে। আরও মেশিন আনতে পারলে এ সংখ্যা আরও বাড়বে। অর্থাৎ চাহিদা অনুযায়ী ল্যাব বাড়তে থাকবে। চাহিদা, সক্ষমতা, মেশিন আমদানিÑ এগুলোর ওপরেই ল্যাবের বাড়ানোর পরিমাণ নির্ভর করবে।’






প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
25109 জন