বিশে^ করোনায় মৃতের সংখ্যা ৯৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে
Published : Saturday, 11 April, 2020 at 12:00 AM, Update: 10.04.2020 9:42:15 PM
দিনেকাল ডেস্ক
নভেল করোনাভাইরাস। গত বছরের শেষে বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাস আক্রমণের কথা জানায় চীন। চীনের উহানে প্রথমে শনাক্ত হওয়া এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের প্রায় সব দেশ ও অঞ্চলে। এতে প্রতিনিয়ত মৃতের সংখ্যা বাড়ছে, বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর এখানেও বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।  পরিসংখ্যান ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৯৫ হাজার ৮১৩ জন মারা গেছেন। মোট আক্রান্ত ১৬ লাখ ৭ হাজার ৯১২ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন তিন লাখ ৫৭ হাজার ১৮০ জন।
করোনাভাইরাসে আক্রান্তের দিক দিয়ে বিশ্বের সব দেশকেও ছাড়িয়ে গেল যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক। মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে মার্কিন এ অঙ্গরাজ্যটি। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় এক হাজার ৭৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাবে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর হার কিছুটা কমেছে বলে দেখা গেছে। বৃহস্পতিবার ১৯৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল। কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে সর্বমোট ১৬ হাজার ৪৭৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। রোগীদের মৃত্যু ও শারীরিক অবস্থার অবনতি এতটাই দ্রুত ঘটছে, যা দেখে সেখানকার চিকিৎসক ও নার্সদের চোখ কপালে উঠে গেছে।-খবর রয়টার্সের। মৃত্যুর সংখ্যার সরকারি হিসেবে সব তথ্য উঠে আসছে না বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন কর্মকর্তারা। কারণ বাড়িতে বসে যেসব রোগী মারা যাচ্ছেন, এই হিসাবে তাদের গণনা করা হচ্ছে না। নিউইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কিউমো বলেন, প্রতিটি ন¤॥^র একেকটি মুখম-ল। মারা যাওয়া লোকজনের স্মরণে রাজ্যটিজুড়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখতে অনুরোধ করেন তিনি। কিউমো বলেন, এই ভাইরাস ঝুঁকিপূর্ণদের আক্রান্ত করে, দুর্বলদের আক্রান্ত করে। বিপন্নদের সুরা দেয়া সামাজিকভাবে আমাদের কর্তব্য। চিকিৎসক ও নার্সরা বলছেন, বয়ষ্ক ও আগে থেকে স্বাস্থ্যগত সমস্যায় থাকা রোগীরাই কেবল ঝুঁকিতে না, তরুণ ও স্বাস্থ্যবানরাও রয়েছেন। নিউইয়র্ক
শহরের মাউন্ট সিনাই হাসপাতালের নার্স ডিয়ানা টরিস বলেন, দেখতে ভালো মনে হচ্ছে, ভালো বোধ করছেন, অন্যদের দেখে এমন রোগীদের কাছে ফিরে আসার পর আর তাদের সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। তিনি বলেন, আমার মানসিকভাবে বিকল হয়ে পড়ার অবস্থা হয়েছে। তাদের করে বাইরে পা দিতেই আতঙ্ক বোধ করছি। কর্মকর্তারা বলছেন, চলতি সপ্তাহে কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা উদ্বেগজনক জায়গায় পৌঁছাতে পারে। হোয়াইট হাউসে এক ব্রিফিংয়ে ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেন, আমরা এ সপ্তাহে নিজেদের হৃদ যন্ত্রণার মাঝে রয়েছি। তবে আশার আলো দেখতে পাচ্ছি।এরপর সবচেয়ে বেশি কোভিড-১৯ রোগী রয়েছে স্পেনে। এ সংখ্যা ১ লাখ ৫৩ হাজার ২২২ জন। আর ইতালিতে আক্রান্তের পরিমাণ ১ লাখ ৪৩ হাজার ৬২৬ জন। নিউইয়র্কে মৃত ব্যক্তিদের সমাধিস্থ করা হচ্ছে গণকবরে। ড্রোন ক্যামেরায় তোলা নিউইয়র্কের ১৫০ বছরের পুরোনো সমাধিেেত্রর ছবি প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। অঙ্গরাজ্যের বেওয়ারিশ ও সমাধি ব্যবস্থা করতে অম পরিবারে মৃত ব্যক্তিদের শেষ ঠিকানা হয় ব্রোঞ্জের হার্ট ল্যান্ড সমাধিেেত্র। গতকালই সেখানে ৪০ জনকে কবরস্থ করা হয়েছে।








প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
25150 জন