স্থানীয় ও রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংকের ৩৫ কোটি ডলার অনুদান
Published : Thursday, 2 April, 2020 at 12:00 AM, Update: 01.04.2020 10:34:15 PM
স্থানীয় ও রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংকের ৩৫ কোটি ডলার অনুদানদিনকাল রিপোর্ট
কক্সবাজারের স্থানীয় জনগোষ্ঠী ও মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্য, সামাজিক নিরাপত্তাসহ জীবনমান উন্নয়নের জন্য ৩৫ কোটি ডলার অনুদান দেবে বিশ্বব্যাংক। বর্তমান বাজার দরে (৮৫ টাকা ধরে) এই অর্থের পরিমাণ ৩ হাজার কোটি টাকা।
গতকাল বুধবার বিশ্বব্যাংকের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়। তিনটি প্রকল্পে এই অর্থ খরচ হবে। কক্সবাজারের স্বাস্থ্য ও লিঙ্গ নির্বিশেষে সহায়তা প্রকল্পে ১৫ কোটি ডলার, বিদ্যমান রোহিঙ্গাদের জরুরি সহায়তা প্রকল্পে অতিরিক্ত ১০ কোটি ডলার, কক্সবাজারের স্থানীয় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য বিদ্যমান সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে অতিরিক্ত ১০ কোটি ডলার দেয়া হবে। বিজ্ঞপ্তিতে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেম্বন বলেন, বাংলাদেশ ১১ লাখ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে মহানুভবতার পরিচয় দিয়েছে। আশ্রয় পাওয়া এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ার স্থানীয় জনগোষ্ঠীর প্রায় তিন গুণ। এতে স্বাভাবিকভাবেই সবাইকে পর্যাপ্ত অবকাঠামো ও সামাজিক সেবা দেয়া যাচ্ছে না। বিশ্বব্যাংকের দেয়া অনুদান স্থানীয় জনগণ ও রোহিঙ্গাদের কাজে লাগবে।

জনগণের সেবায় চিকিৎসকদের এগিয়ে আসার আহবান স্বাস্থ্যমন্ত্রীর
দিনকাল রিপোর্ট
করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। ১৫৭ জনের নমুনা পরীা করে নতুন আরো তিনজন শনাক্ত করা হয়েছে। আবার একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন আরো ছয়জন। বুধবার দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক অনলাইন  প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য দেন।
তিনি জানান, এ পর্যন্ত বাংলাদেশে ৫৪ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে।
সব হাসপাতাল, প্রাইভেট  চেম্বারের চিকিৎসকদের উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যেই  স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় কিছুটা স্থবিরতা এসেছে। স্তিমিত হয়ে গেছে চিকিৎসা। আপনারা জনগণের চিকিৎসা সেবায় এগিয়ে আসুন, চিকিৎসা শুরু করুন। আমি আশা করছি, আপনারা দেশবাসীর পাশে থাকবেন।
তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে বলেন, ভাল থাকার জন্য, নিরাপদ থাকার জন্য আপনারা ঘরে থাকুন। সাবান পানি দিয়ে হাত ধুবেন, শরীরে রোগ প্রতিরোধ মতা বৃদ্ধি করতে ভিটাসিন সি জাতীয় খাবার খাবেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে আইইডিসিআর ছাড়া বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে করোনা ভাইরাস পরীা শুরু হয়েছে। আপনাদের কারো মধ্যে করোনা ভাইরাসের লণ থাকলে, সন্দেহ হলে টেস্ট করে নিন। সবাই করোনা ভাইরাস থেকে সুরতি থাকুন। তিনি জানান, আমরা ইতোমধ্যে পিপিই, মাস্কের মজুদ বৃদ্ধি করেছি। অতি প্রয়োজনীয় এই সুরা সামগ্রীগুলো সঠিকভাবে ব্যবহার করুন।
ঢাকা থেকে যারা গ্রামের বাড়িতে গেছেন তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমাদের তথ্য রয়েছে যে আপনারা গ্রামে গিয়ে সরকারি নির্দেশনা মানছেন না। অবাধে বাইরে চলাফেরা করছেন। আমি আবারো আপনাদের উদ্দেশে বলতে চাই, নির্দেশনা মেনে ঘরের মধ্যে সুরতি থাকুন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রতিটি মেডিকেল কলেজে করোনা ভাইরাস পরীার ব্যবস্থা করা হবে।




অনলাইন ব্রিফিংয়ে এবার আইইডিসিআর’র পরিচালক অধ্যাপক সেব্রিনা ফোরা ছিলেন না। এমআইএস’র পরিচালক ডা. হাবিবুর রহমান সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হটলাইন নাম্বারে কল করে অশালীন বক্তব্যের ব্যাপারে বলেন, আপনারা হটলাইনে কল করে অশালীন বক্তব্য রাখবেন না। এরপর থেকে যারা এ ধরনের বক্তব্য রাখবেন তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, হটলাইনে নারী ডাক্তারের কণ্ঠ শুনলেই অনেকে করোনা সম্বন্ধে কথা না বলে আজে-বাজে কথা বলছে। কেউ নারী ডাক্তারকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিচ্ছে, কেউ জিজ্ঞাসা করছে ওই ডাক্তারের বিয়ে হয়েছে কি না। আবার অশ্রাব্য কথা বলছে। এটা নিয়ে একজন ডাক্তার ফেসবুকে ােভ প্রকাশ করেছেন।






প্রথম পাতা'র আরও খবর
অনলাইন জরিপ

 হ্যাঁ   না   মন্তব্য নেই
দিনকাল ই-পেপার
পুরনো সংখ্যা
আজকের মোট পাঠক
25257 জন